আমার অনুভবে তিনি | শেখ সাইফুল ইসলাম

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:১২ PM, ২৪ নভেম্বর ২০২০

আমি যখন নবুওয়াতি কর্মধারার আয়নায় তাঁকে দেখি তখন তাঁর মধ্যে নবাবী ধারার “সামগ্রিকতার” অনুসরণ দেখতে পাই।
আমি যখন সিদ্দিকী আয়নায় তাঁকে দেখি তখন তাঁর মধ্যে ‘আ ইয়ানকুসুদ্দীনু’ “দীন অপূর্ণাঙ্গ থাকবে আর আমি বেঁচে থাকব?” এর জ্বলন ও চেতনা দেখতে পাই।
আমি যখন ফারুকী আয়নায় দেখি তখন তাঁর মাঝে হক-বাতিলের পার্থক্য করার অন্তর্দৃষ্টি এবং হককে হক হিসেবে জানা, মানা ও প্রকাশ করার দৃঢ়তা দেখতে পাই।
আমি যখন ওসমানী আয়নায় তাঁকে দেখি তখন তাঁর মধ্যে দীনি আত্মমর্যাদাবোধের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত দেখতে পাই।
আমি যখন আলাবী আয়নায় দেখি তখন তাঁর মাঝে বিচক্ষণতা, দূরদর্শিতা ও যে কোন মূল্যে নীতির ওপর অটল থাকার সাহসিকতা দেখতে পাই।

আমি যখন ইসলামের উজ্জ্বল নক্ষত্র আব্দুল কাদের আলজাযায়েরী, সুদানের আহমদ সুদানী, সাইয়েদ আহমদ শরীফ আস-সানুসী এবং সাইয়েদ আহমদ শহীদ বেরলভী রহ.এর কর্মধারায় তাঁকে তখন তাঁর মাঝে রূহানিয়াত ও জিহাদের সমন্বয়ে এক বিশিষ্ট কর্মপন্থা দেখতে পাই।

আমি যখন আধুনিক প্রেক্ষাপটে ইসলামী আন্দোলনের দৃষ্টিতে দেখি তখন তাঁর কর্মপন্থার সাথে ইমাম হাসান আল বান্নার সাথে মিল দেখতে পাই। যিনি সমাজসেবা, ধর্মীয় দাওয়াতি ধারা ও রাজনৈতিক আন্দোলনকে সমান্তরালভাবে এগিয়ে নিয়েছেন।
আমি যখন প্রতিকূল পরিবেশে সংস্কার কার্যক্রমকে লক্ষ্যপানে এগিয়ে নেয়ার দৃষ্টিতে দেখি তখন তাঁর সাথে নূরসীর কর্মপন্থার মিল দেখতে পাই। যিনি প্রতিকূল পরিবেশে ইসলামের শিক্ষা, আধ্যাত্মিকতা ও সামাজিক কাজ জোরদার করে রাজনীতির জমিনকে প্রস্তুত করতে থাকেন।
আমি যখন বুদ্ধিবৃত্তিক ধারার আন্দোলনের দৃষ্টিতে দেখি তখন তাঁর মাঝে আন-নাহদার দৃষ্টান্ত দেখতে পাই। যেখানে ভিন্ন ভিন্ন প্লাটফর্ম থেকে সবাই একই লক্ষ্যে, একই অভিমূখে যাত্রা করবে।

তাঁর আন্দোলন একটি আত্মশুদ্ধিমূলক ধর্মীয় আন্দোলন,যা অনুসারী ও সর্বব্যাপক উপকারিতার দিক থেকে বিশ্বে সর্ববৃহৎ।
তাঁর আন্দোলন দাওয়াতি আন্দোলন,যা মানুষকে দীনের পথে আহবানের উত্তম কার্যকর পন্থা।
তাঁর আন্দোলন বৃহৎ শিক্ষা আন্দোলন, যা শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে এবং জাতির উপযোগী শিক্ষাব্যবস্থা প্রবর্তনে নিবেদিত।
তাঁর আন্দোলন রাজনৈতিক আন্দোলন, যা গণমুখী চরিত্র নিয়ে গণমানুষের মুক্তির জন্য আন্দোলন করে। ইসলামী আদর্শের ভিত্তিতে গণমুখী চরিত্রের তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠিত এত বৃহৎ সংগঠন বিশ্বে একেবারে বিরল।

তিনি তাঁর কর্মধারার মাধ্যমে বিশ্ব ইসলামী আন্দোলনে নবধারা সংযোজন করেছেন।
নতুন মডেল স্থাপন করেছেন। ইতিহাসে নিজের স্থান তৈরি করে নিয়েছেন।

আমি আমার প্রাণাধিক প্রিয় শায়েখ রহ. এর কথা বলছি।

লেখক: শিক্ষক, কলামিস্ট ও রাজনীতিবিদ

আপনার মতামত লিখুন :