আজ তরুন কবি ও লেখক নুর আহমেদ সিদ্দিকী’র জন্মদিন

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:১০ PM, ১৫ এপ্রিল ২০২১

আজ আমার জন্মদিন।এই অতিক্রান্ত বছর গুলোতে বড় কোন অর্জন না থাকলেও সততা,নিষ্টা এবং আদর্শের পথ থেকে বিচ্যুত হয়নি।ক্ষমতা,অর্থবিত্তের মোহে জলাঞ্জলি দিইনি আদর্শ ও স্বকীয়তাকে। আঘাতে আঘাতে জর্জরিত হলেও ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছি সফলতার অমীয় সুধা পানের লক্ষ্যে।হৃদয়ে জমে থাকা হাজারো কষ্টকে পাথর চাপা দিয়ে এগিয়ে চলছি আপন লক্ষ্য হাছিলে।জীবনে মা বাবার চেয়ে আপন কেউ নেই।কিন্তু সেই আপন বাবা মাকে হারিয়েছি অল্প বয়সেই। ২০১১ সালে ৬ ফেব্রুয়ারি রোজ রবিবার মমতাময়ী মা ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে পাড়ি জমিয়েছে না ফেরার দেশ ।আর ২০১৫ সালে ২১ মার্চ বাবাও চির বিদায় নেন আমাদের কাছ থেকে।

অধিক শোকে পাথর হয়ে উচ্চ শিক্ষা সমাপ্তির পথে।আমার চলার পথে সব থেকে বেশি কাছে ছিল আমার বড় ভাই মাস্টার নুরুল আমিন।দু’জনই যেখানে যেতাম, একই সাথেই যেতাম। বয়স, পড়ালেখার স্তর কাছাকাছি থাকায় অনেকটা বন্ধুসুলব ছিলাম।যার অনুপ্রেরণা আর সহযোগিতায় আজ উচ্চ শিক্ষা সমাপ্তির পথে।আমি তো সেই চতুর্থ শ্রেণি থেকে ঝরে পড়া ছাত্র।কিন্তু আল্লাহ তায়ালার কি অশেষ রহমতে হাটি হাটি পা পা করে উচ্চ শিক্ষা সমাপ্তির দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছ।১৯৯৫ সালে ১৫ এপ্রিল আমার জন্ম।২৬ টি বছর অতিক্রম করেছি।জানি না, এই পৃথিবীতে আর কতদিন বাঁচব।আজ বাবা- মাকে খুব মনে পড়ছে।

জানি না,জীবনে বড় কিছু করতে পারবো কিনা।তবে আমি ক্ষমতা, অর্থ বিত্তের মোহে আমার আদর্শ ও স্বকীয়তাকে বিসর্জন দেবোনা।চলার পথে কত আপনজন,কত বন্ধুবান্ধব ছিল, আছে এবং থাকবে।হয়তো আমি তাদের মনের মত হতে পারিনি বা পারবোনা।আমি নিজের আদর্শকে জলাঞ্জলি দিতে পারবোনা।আমরা পাঁচ ভাই ও দুই বোন।সবার ছোট আমি। সে হিসেবে আদর স্নেহে বড় হয়েছি।তা স্বত্বেও কিছু অজানা দুঃখ হৃদয়টাকে কামড়ে ধরেছে।সর্বাবস্থায় আল্লাহ তায়ালার শুকরিয়া আদায় করি।যারা জন্মদিন উপলক্ষ্যে অনলাইন ও অফলাইনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।আপনাদের উৎসাহ,সহযোগিতা ও অনুপ্রেরণা আমাকে সফলতার দ্বারপ্রান্তে পৌছে দিবে বলে আমার বিশ্বাস।অবশেষে সকলের কল্যাণ কামনা করে ইতি টানছি।

#নুর আহমেদ সিদ্দিকী

আপনার মতামত লিখুন :