ফরিদগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে নৌকা পেতে ১১১ প্রার্থীর দৌড়ঝাঁপ

মোঃ মুজাম্মেল হোসেন মল্লিকমোঃ মুজাম্মেল হোসেন মল্লিক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:১৬ PM, ৩০ নভেম্বর ২০২১

মোঃ মুজাম্মেল হোসেন মল্লিকঃ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফরিদগঞ্জের ১৩টি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিক পেতে চান ১১১জন।

১নং বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের ৭জন প্রার্থীরা হলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান পাটওয়ারী, উপজেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার হারুর অর রশিদ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বাচ্চু মিয়া স্বর্ণকার, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন(বিল্লাল মাস্টার) খান, ইউনিয়ন আ’লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক আনিছুজ্জামান বকাউল, আওয়ামীলীগ নেতা মনির হোসেন মজুমদার এবং ইউনিয়ন যুবলীগের ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বাহাউদ্দিন বাহার।

২নং বালিথুবা পুর্ব ইউনিয়নের ৬জন প্রাথূীরা হলেন, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীরীগের সাধান সম্পাদক হারুন অর-রশীদ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আ:হাই মজুমদার, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা জিএম হাছান তাবাচ্ছুম, আওয়ামীলীগ নেতা মহসীন তপদার, আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন খোকন তালুকদার এবং আওয়ামীলীগ নেতা মিজানুর রহমান।

৩ নং সুবিদপুর পুর্ব ইউনিয়নের ১১জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মাওলানা শরাফত উল্যাহ, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বাবু, ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম পাটোওয়ারী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি কামরুল ইসলাম রোমান, আওয়ামীলীগ নেতা মো. শরিফ মজুমদার, জেলা যুবলীগ নেতা জসিম উদ্দিন, আলমগীর হোসেন জুয়েল, আনোয়ার হোসেন, কাদির মোল্লা, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল আলম পাটওয়ারী কবির এবং ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক জানিবুল হক জুয়েল।

৪ নং সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের ৭জন প্রার্থীরা হলেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বাচ্চু মিয়া মজুমদার, সিনিয়র সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন মিন্টু, সাধারন সম্পাদক আবদুল মালেক মহন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শফিউল আযম শুকু পাটওয়ারীর, আওয়ামীলীগ নেতা রবিউল হায়দার চৌধুরী জিন্না ও সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন মামুন এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক পারভেজ আহমেদ।

৫নং গুপ্টি পূর্ব ইউনিয়নের ৯জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল গনি বাবুল পাটওয়ারী, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার, উপজেলা আ’লীগের সদস্য মোহাম্মদ আলী মজুমদার, ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি আমির হোসেন মাস্টার, ইউনিয়ন আওয়ামীরীগের সাধারন সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান ভদ্র , আনোয়ার হোসেন খোকন আখন্দ, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বেনজির আহম্মেদ সুমন, ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি আবদুস ছাত্তার পাটওয়ারী এবং আওয়ামীলীগ নেতা ফরিদ আহম্মেদ বেপারী।

৬নং গুপ্টি পশ্চিম ইউনিয়নের ৭জন প্রার্থীরা হলেন, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ইলিয়াস বেগ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি অ্যাড. মাহাবুব আলম, আওয়ামীলীগ নেতা বুলবুল আহম্মেদ, আ’লীগ নেতা জাকির হোসেন মিজি, ইউনিয়ন আ’লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আবুল কাশেম আজাদ, ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি মাসুদ আমিন এবং আওয়ামীলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম পাটওয়ারী।

৭নং পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের ১১জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আলী আক্কাছ ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক পিএম আক্তার, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বশির উল্লাহ (এমএসসি), উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আনোয়ার হোসেন, ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা আলাউদ্দিন পাটওয়ারী, মামুনুর রশীদ কিশোর, ডা: মোস্তফা কামাল, শহিদুল ইসলাম পাটওয়ারী, এমরান হোসেন সেলিম, আনিছুর রহমান এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম সর্দার।

৯নং গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের ১১জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল চৌধুরী, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ডা: মোনায়েম খান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান কায়েম পারভেজ লাভলু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য শেখ মোহাম্মদ শাহ্ আলম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এমরান হোসেন মিলন ভূঁইয়া, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক হাজী সফিকুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা আবু তাহের সরকার, ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি পুতুল সরকার, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাবেক নেতা সুমন খান এবং সাহাজুদ্দিন রিয়াদ।

১০নং গোবিন্দপুর দক্ষিন ইউনিয়নের ৮জন প্রার্থীরা হলেন, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মো. জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলী আক্কাছ পাটওয়ারী, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির পাটওয়ারী, উপজেলা যুবলীগের সাবেক নেতা এমরান হোসেন ভূঁইয়া, ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক খোরশেদ আলম খন্দকার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আলাউদ্দিন ভূঁইয়া, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া, আ’লীগ নেতা হাবিবুর রহমান রুবেল।

১১নং চরদুঃখিয়া পূর্ব ইউনিয়নের ৯জন প্রার্থীরা হলেন, ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন বাচ্চু, ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি ইকরাম হোসেন, সহ-সভাপতি হাজী ইব্রাহিম খান, উপজেলা আ’লীগের সদস্য নুরুন্নবী জমাদার, ইউনিয়ন আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন রাঢ়ী, ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি নুরুল আমিন পাটওয়ারী, আওয়ামীলীগ নেতা দেলোয়ার পাটওয়ারী, ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আবদুল মোতালেব তুহিন, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মাহমুদুল হাছান মিরাজ।

১২নং চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের ৬জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান হাসান আব্দুল হাই, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবদুল কাদির পাটওয়ারী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান স্বপন ভূঁইয়া, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক সুমন আহমেদ, আ’লীগনেতা লুৎফুল্লাহিল করিম ফারুক, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মোরশেদ আলম মুরাদ পাটওয়ারী।

১৫নং রূপসা উত্তর ইউনিয়নের ৯জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান উপজেলা আ’লীগে সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক ফারুকী, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন পাটওয়ারী, সাধারন সম্পাদক আব্দুর রশিদ পাটওয়ারী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নূরের রহমান সুমন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনি সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম সুমন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধান সম্পাদক কাউছার উল আলম কামরুল, সাবেক যুবলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম, মাহফুজ গাজী, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ওয়ালীদ বিন পাবেল।

১৬নং রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের ১০জন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইসকান্দার আলী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অহিদুর রহমান, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি আ: ছাত্তার পাটওয়ারী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মহিউদ্দিন ভূঁইয়া ইরান, ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান প্যানেল চেয়ারম্যান আ: কাদের খোকন, উপজেলা যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান সবুজ, আওয়ামীলীগ নেতা মো. শরীফ হোসেন খান, উপজেলা যুবলীগের সদস্য জহিরুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা মুকুল খান ও মনির হোসেন।

আপনার মতামত লিখুন :