রামগঞ্জে বসতঘরে হামলা ভাঙচুর, বৃদ্ধাকে পিটিয়ে আহত

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:২১ PM, ১৯ এপ্রিল ২০২২

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বৃদ্ধার বসতঘরে হামলা ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছ। এসময় বাধা দিলে রওশন আরা (৫৫) কে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে পার্শ্ববর্তী এমরান হোসেন সৈকত এর বিরুদ্ধে। ১০ এপ্রিল রোববার দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের শাকতলা মিঝি বাড়ির মৃত সৈয়দ আহমেদের বিধবা স্ত্রী রওশন আরা বেগমের বসতঘরে হামলা চালায় একই বাড়ির আবুল বাশারের ছেলে এমরান হোসেন সৈকত। এ ঘটনায় গতকাল ১৯ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে রামগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী বৃদ্ধা রওশনআরা।
স্থানীয় ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শাকতলা মিজিবাড়ি রওশনারা ও আবুল বাশার এর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। এরই সূত্র ধরে রোববার আবুল বাশারের ছেলে এমরান হোসেন সৈকত বসতঘরে হামলা ও ভাঙচুর চালায় এসময় বাধা দিলে রওশন আরা কে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে সৈকত। রওশন আরার আত্মচিৎকারে তার দেবর মফিজুল ইসলাম সহ পাশ্ববর্তী বাড়ির লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন।
ভুক্তভোগী রওশন আরা বলেন, আমার ছেলেরা প্রবাসে থাকে,ঘরে আমি একা থাকি। কয়দিন পরপর সৈকত আমাকে মারধর করে। আমাকে প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। বাড়ীতে বসবাস করা আমার জন্য নিরাপদ নয়।
সৈকতের চাচা ও রওশনআরার দেবর মফিজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, চিৎকার শুনে আমি দৌড়ে আসি। মারাত্মক আহত অবস্থায় রওশন আরা কে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছি।
সৈকতের বাবা আবুল বাশার এঘটনায় উভয়ের দোষ আছে বলে দাবী করেন।
তদন্ত কর্মকর্তা এএসআই জাহাঙ্গীর বলেন, এঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :