অনেকে মুখ ফুটে বলে এবার হাতপাখায় ভোট দেবো– এটা তাদের সহ্য হয় না : হাফেজ আঃ রহিম

mayn uddinmayn uddin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৪৮ PM, ০৪ জুন ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘আমরা ব্যক্তিগত কোনো স্বার্থ নিয়ে কিংবা চেয়ার দখল করার জন্য নির্বাচনে আসি নাই। একমাত্র চরমোনাই পীর সাহেব হুজুরের নির্দেশে গ্রামগঞ্জে মানুষ যেন সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারে, মানুষের ন্যায্য অধিকার পেতে পারে, বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতাসহ অন্যান্য সরকারি যেসব ভাতা আছে তা সুন্দরভাবে বন্টন হয়ে মানুষের ঘরে পৌঁছতে পারে– এজন্যই আমাকে প্রার্থী করা হয়েছে।’

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আসন্ন ধুলাসার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমির (পীর সাহেব চরমোনাই) মনোনীত হাতপাখা মার্কার প্রার্থী বরেণ্য আলেম হাফেজ ক্বারী মোঃ আব্দুর রহিম শুক্রবার (৩ জুন) শেষ বিকেলে ইউনিয়নের চাপলি বাজারে তাঁর পক্ষে অনুষ্ঠিত পথসভায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আমি এই দেশই বড় হয়েছি। এই দেশে যারা আমার বিরোধিতা করতেছে তারাও আমার ছাত্র। শুধু এরা না, যাদের আমি পড়িয়েছি, তাদের ছেলে-নাতিও পড়িয়েছি আমি। আমার কোনো দোষ বা দুর্নাম ছিলোনা ইতিপূর্বে। প্রার্থী হওয়ায় দুর্নাম ছড়ানো হচ্ছে। এমনকি যে প্রার্থীরা আমার দুর্নাম রটাছে, কিছুদিন পূর্বে আমাকে তারা ধরাধরি করেছে– আপনি না আসলে এখানের মসজিদ-মাদ্রাসা থাকবেনা, বিলীন হয়ে যাবে।’

এছাড়া তিনি বলেন, ‘যখন আমাকে প্রার্থী করা হলো, সকলেই আমার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে গেলো। ক্ষমতার জন্য, অর্থের জন্য মানুষ মানুষকে খুন করে। আজকে ক্ষমতার জন্য এমন বিরোধিতা শুরু করছে, এমন গুজব রটানো শুরু করছে– যা ভাষায় বলা কঠিন।’

তিনি আরো বলেন, ‘সারা ইউনিয়নজুড়ে রব উঠেছে হাতপাখা, হাতপাখা, হাতপাখা। অনেকে মুখ ফুটে বলে, এবার হাতপাখায় ভোট দেবো। এটা তাদের সহ্য হয় না। যার কারণে তারা পাগল হয়ে গেছে, পাগলে যা ইচ্ছে তাই বলতে পারে। এজন্য আপনারা কোনো গুজবে কান দিবেন না।’

তিনি তাঁর কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা নিরলসভাবে কাজ করে যাবেন। মানুষের দ্বারে দ্বারে যাবেন, মা-বোনদেরকে বুঝাবেন। কুৎসা রটিয়ে যেন মন ভাঙাতে না পারে। এছাড়া সন্ত্রাসীরা ভোটকেন্দ্রে গিয়ে বলবে, নৌকা মার্কায় ভোট দাও। এই কথা যেন বলতে না পারে। যারা এজেন্ট থাকবেন তারা মজবুত হয়ে থাকবেন, প্রতিবাদ করবেন, ভোট গণনা না হওয়া পর্যন্ত কেন্দ্র ছাড়বেন না।’

হাফেজ আব্দুর রহিম বলেন, ‘আল্লাহ যদি কাউকে জিতাতে চায়, দুনিয়ার সমস্ত মানুষ একত্রিত হয়েও ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না। আমরা আল্লাহর উপর বিশ্বাসী, আমরা মানুষকে ভয় করিনা, কারো চোখ রাঙানি ভয় করিনা। একমাত্র আল্লাহর জন্য, দ্বীনের স্বার্থে আমরা হাতপাখা মার্কার জন্য কাজ করছি।’

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তিনিই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন প্রত্যাশা করে দল-মত নির্বিশেষে সবার কাছে হাতপাখায় ভোট চেয়েছেন এবং প্রশাসন ও সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ সময় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ধুলাসার ইউনিয়ন শাখার সভাপতি হাফেজ ক্বারী মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মোহাম্মদ মিল্লাত-এর সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ধুলাসার ইউনিয়ন শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি হাফেজ ক্বারী জাকারিয়া, সদস্য মাওলানা ফোরকান, মৌলভী হাবিবুর রহমান, ক্বারী এমায়দুল, মহিপুর থানা শাখার ইসলামী ছাত্র আন্দোলন-এর সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ মাহদী হাসান, ডালবুগঞ্জ ইউনিয়ন ইসলামী আন্দোলন-এর মহিলা ও পরিবার বিষয়ক সম্পাদক ক্বারী মোঃ আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

পথসভায় বক্তারা আ’লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী মোঃ মোদাচ্ছের হাওলাদারের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় বাঁধা ও এক কর্মীকে চর-থাপ্পর দেওয়ার অভিযোগ তুলেন।

আপনার মতামত লিখুন :