ফরিদগঞ্জে অষ্টম শ্রেনীর শিক্ষার্থীকে ধর্ষনের অভিযোগ, অভিযুক্ত মনির আটক

মোঃ মুজাম্মেল হোসেন মল্লিকমোঃ মুজাম্মেল হোসেন মল্লিক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:১৬ AM, ১২ জুন ২০২২

মোঃ মুজাম্মেল হোসেন মল্লিকঃ ফরিদগঞ্জে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত মনির হোসেন (৩২) নামে এক যুবককে আটক করেছে। এ ব্যাপারে ঘটনার শিকার শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। উপজেলার রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের পশ্চিম কাউনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মনির হোসেন পশ্চিম কাউনিয়া গ্রামের বড় বাড়ির মোস্তফার ছোট ছেলে।
সরেজমিনে ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের পশ্চিম কাউনিয়া গ্রামের বড় বাড়ির মোস্তফার ছোট ছেলে মনির হোসেন চলতি বছর রমজানে সৌদি আরব থেকে ছুটিতে বাড়িতে আসে। এরই মধ্যে প্রতিবেশী স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীর সাথে প্রেমে জড়িয়ে পড়ে সে। এরই ধারাবাহিকতায় ওই শিক্ষার্থীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ৮ জুন রাতে স্থানীয় একটি মক্তবে নিয়ে ধর্ষণ করে। বিষয়টি জানাজানি হলে পরদিন রাতে ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এসআই নুরুল ইসলাম তাৎক্ষণিক অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত মনির হোসেনকে আটক করেস। অপরদিকে, ঘটনার শিকার শিক্ষার্থীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়।
এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোর্শেদ আলম পাটোয়ারী জানান, ৮ জুন রাতে ওই শিক্ষার্থীর বাবা তাকে ফোনে জানান, ওইদিন সন্ধ্যার পর থেকে তার মেয়েকে খুঁজে পাচ্ছেন না। কারো সাথে পালিয়েছে না কোনো আত্মীয়ের বাড়িতে গেছে তা তিনি জানেন না। তবে অভিযুক্ত মনিরের সাথে তার মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে বলে জানান। পরদিন সকালে জানতে পারি তার মেয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে।
ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন জানান, অভিযুক্তকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। ঘটনার শিকার ধর্ষিতাকে পুলিশি হেফাজতে নিয়ে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর সদর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :